বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
হোমজেলাজাতীয় শোক দিবসে ১৪ দলের আলোচনা সভায় মোকতাদির চৌধুরী এমপি।।বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে ...

জাতীয় শোক দিবসে ১৪ দলের আলোচনা সভায় মোকতাদির চৌধুরী এমপি।।বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে  প্রত্যক্ষ্য ও পরোক্ষ্য ভাবে জড়িতদের  গণতদন্ত কমিটি করে বিচার করতে হবে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক:

জাতীয় শোক দিবসে  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৪ দলীয় জোটের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রোববার বিকেলে শহরের জেলা শিল্পকরা একাডেমী মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তি যোদ্ধা  র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বলেন,একটি  বৈশম্যহীন ও শোষণমুক্ত সমাজ গঠনের পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছিলেন বঙ্গবন্ধু।  এটাকে তারা পছন্দ করেনি।  তাদের যে পরিকল্পনা ছিল সেটি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা ছাড়া সম্ভব ছিলনা। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পরে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা আওয়ামীলীগার মাঠে দাড়ায় নি। কারণ ক্ষমতায় আওয়ামীলীগই ছিল। খুনি মোস্তাক ও তার সহচররা যারা মন্ত্রীসভায় গিয়েছিল সকলেই জোর করে যায়নি। এ বিষয় গুলোকে নশ্চাৎ করার জন্যই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল। এখনো আমরা সেখান থেকে উঠে আসতে পারিনি। ধর্মান্ধতা,বাঙ্গালীর সংস্কৃতির বিরোধাচারণ এগুলো জিয়া ও মোস্তাকরা আমাদের সমাজের রন্ধে রন্ধে  বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পরে পৌছে দিয়েছিল।বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক একটি বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিলেন।  যাকে আমরা এককথায় সোনার বাংলা বলি। সেই আর্দশ আমাদের ধারণ করতে হবে। সেই আর্দশকে নশ্চাৎ করার জন্যই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে।  কতিপয় বিপদগামী,সেনাকর্মকর্তা নয় এটি একটি গভীর ষড়যন্ত্র ছিল। যারা স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি আর্ন্তজাতিক ও এদেশে ঘাপ্টি মেরে লুকিয়ে ছিল তারাই এ নারকীয় হত্যাকান্ড ঘটিয়েছিল। ঘটিয়েছিল বলেই ৭৫ থেকে ৯৫ পর্যন্ত বাংলাদেশ উল্টোপথে হেটেছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আর্দশ মরেনি  বঙ্গবন্ধু মরে নাই। তাই আমরা  বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে ধারণ করে  আবারো এগিয়ে যাচ্ছি।
বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে  প্রত্যক্ষ্য ও পরোক্ষ্য ভাবে জড়িতদের বিচারে গণতদন্ত কমিটি করে বিচার করার দাবী জানান তিনি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা জাসদের সভাপতি এড.আক্তর হোসেন সাইদ’র সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি  ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীর মুক্তি যোদ্ধা আল মামুন সরকার,বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান বাবুল, জেলা ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি  কমরেড এড.কাজী মাসুদ আহমেদ,শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী, নারী মুক্তি সংসদের সভাপতি ফজিলাতুন্নাহার,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল।
সভা পরিচালনা করেন শহর জাসদ নেতা জুন্নুন। এসময় জেলা আওয়ামীলীগ ও  অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments