রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪
হোমসববিজয়নগরে নিখোঁজ হওয়া গৃহবধূ ঢাকা থেকে উদ্ধার

বিজয়নগরে নিখোঁজ হওয়া গৃহবধূ ঢাকা থেকে উদ্ধার

বিজয়নগর প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় শ্বশুরবাড়ি থেকে গত ১৯ জানুয়ারি নিখোঁজ হওয়া গৃহবধূকে ঢাকার কাফরুল এলাকার ইব্রাহিমপুর নামক স্থানের একটি ভাড়া বাসা থেকে উদ্ধার করেছে বিজয়নগর থানা পুলিশ।
নিখোঁজ গৃহবধূর বাবার বাড়ি বিজয়নগর উপজেলায়। প্রায় ৭ বছর পূর্বে একই উপজেলার প্রবাসী রাসেল মিয়ার সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় তার। ওই গৃহবধূ ৫ বছরের একটি কন্যা সন্তান নিয়ে স্বামীর বাড়িতে বসবাস করতেন জানা যায়, গৃহবধূ নিখোঁজের ৩৩ দিন পর তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের বিষয়ে তার মা গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বিজয়নগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এরপর বিষয়টি নিয়ে চম্পকনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ও তদন্তকারী কর্মকতা গাজী রবিউল ইসলাম কাজ শুরু করেন।
এরই মধ্যে ১৭ ফেব্রুয়ারি একটি ভয়েস ম্যাসেজ পায় গৃহবধূর পরিবার। প্রাথমিক পর্যায়ে তদন্তের স্বার্থে গৃহবধূর শ্বশুর-শাশুড়িকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। পরে এ ঘটনায় গৃহবধূর মা বাদী হয়ে বিজয়নগর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলায় গৃহবধূর শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও ননদের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করা হয়। মামলা দায়েরের একদিন পর পার্শ্ববর্তী মাধবপুর উপজেলা থেকে অপহরণ মামলার প্রধান আসামি গৃহবধূর ননদকে (৩০) গ্রেপ্তার করে বিজয়নগর থানার পুলিশ। পরে গৃহবধূর শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও ননদকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। এদিকে নিখোঁজ গৃহবধূকে ২১ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকার কাফরুল থানার ইব্রাহিমপুরে এক আত্মীয়ের ভাড়া বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া গৃহবধূ বর্তমানে কিছুটা অস্বাভাবিক। তিনি পরকীয়া প্রেমিকের সাথে পালিয়ে গিয়েছিলেন। তিনি ঢাকায় ফার্নিচারের কাজ করেন বলে জানা গেছে। তার এক আত্মীয়ের ভাড়া বাসা থেকে গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়। তবে প্রেমিককে পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাজ করছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই গাজী রবিউল ইসলাম বলেন আমরা তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে অপহৃত গৃহবধূকে কাফরুল থানার ইব্রাহীমপুর থেকে উদ্ধার করেছি। তার কাছ থেকে কিছু তথ্য আমরা সংগ্রহ করেছি যা তদন্তের স্বার্থে বলা যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে বিজয়নগর থানার ওসি আসাদুল ইসলাম জানান গৃহবধূর ননদ অপহরণ মামলার প্রধান আসামি। তার কাছ থেকে একটি মোবাইল নম্বর পাওয়ার পর ওই নম্বর ট্র্যাকিং করে গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়েছে। প্রেমের বিষয়টি ননদ জানতেন। উদ্ধার গৃহবধূকে আইনি প্রক্রিয়ায় আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত তার জবানবন্দি গ্রহণ করবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments