বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
হোমসব ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের কর্মসূচি

 ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক

গৌরব ও অহংকারের ১৬ ডিসেম্বর বাঙ্গালী জাতির মহান বিজয় দিবস। বিজয় দিবসে জাতি সশ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করবে স্বাধীনতার স্বপ্নপুরুষ, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে অকুতোভয় বীর মুক্তিযোদ্ধা, জীবন উৎসর্গকারী ও যুদ্ধাহত বীর সন্তানদের যাদের ত্যাগে অর্জিত হয়েছে আমাদের কাঙ্খিত বিজয়; জাতি অর্জন করেছে লাল সবুজ পতাকা এবং স্বাধীন সার্বভৌম দেশ।
বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষে মহান বিজয় দিবস-২০২৩ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনের লক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এদিন প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হবে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের ফারুকী পার্ক স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাংস্কৃতিক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।
বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষে মহান বিজয় দিবস ২০২৩’ যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসবমুখর পরিবেশে উদ্যাপনের লক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন আয়োজিত বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে- ১৬ ডিসেম্বর ফারুকী পার্ক স্মৃতিসৌধে সুর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের শুভ সূচনা, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ফারুকী পার্কে সরকারি-বেসরকারি, স্বায়ত্ব শাসিত বিভাগ/সংস্থা সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনতা কর্তৃক স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সরকারি, বেসরকারি স্বায়ত্ব শাসিত এবং বেসরকারি ভবনে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ৮টায় নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবে জেলা প্রশাসন। এসময় কুচকাওয়াজ ও অভিবাদন গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সকাল সাড়ে ১০ টায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে মোড়গ লড়াইল, বেলা ১১টায় কারাতে প্রতিযোগীতা। বেলা ১১টায় নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদেরকে সংবর্ধনা দেয়া হবে। এ সময় অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বেলা সাড়ে ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া মূক ও বধির নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় ও সরকারি শিশু পরিবারের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের অংশগ্রহণে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর জেলার সকল মসজিদে বাদ জোহর জাতির সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা এবং মুক্তিযুদ্ধে শহিদ ও যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বিশেষ মোনাজাত এবং অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়সমূহে সুবিধাজনক সময়ে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে। পাশাপাশি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সকল সরকারি হাসপাতাল, শিশু সদন, জেলখানা, এতিমখানা ও শিশু পরিবারে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। বিকেল আড়াটায় ব্রাহ্মণবড়িয়া নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসন একাদশ বনাম পৌরসভা ও মুক্তিযোদ্ধা একাদশ দলের মধ্যে প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবেক। বিকেল তিনটায় বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হবে। সন্ধ্যে সাড়ে পাঁচটায় সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গনে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হবে।
মহান এ দিবসে সকলকে অনুষ্ঠানে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক স্ব বান্ধব উপস্থিত একান্তভাবে কামনা করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম। অনুরূপ কর্মসূচি জেলার সকল উপজেলায় পালিত হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments