বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
হোমসবভুলরে দায় আমার, সাফল্য আপনাদের ’ - শেখ হাসিনা 

ভুলরে দায় আমার, সাফল্য আপনাদের ’ – শেখ হাসিনা 

নিজস্ব প্রতিবেদক
দেশবাসীকে সাফল্যের কৃতত্বি দায়ে আওয়ামী লীগরে সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা বলছেনে, বগিত ১৫ বছরে সরকার পরচিালনার পথ পরক্রিমায় যদি ভুলত্রুটি হয়ে থাকে, তার দায়ভার আমি নিচ্ছি। সাফল্যের কৃতত্বি আপনাদের, দেশের মানুষের, বাংলাদশেরে জনগণের। আমি বাংলাদেশের জনগণকেই সেই কৃতত্বি দচ্ছি।
বুধবার (২৭ ডসিম্বের) রাজধানীর প্যান প্যাসফিকি সোনারগাঁও হোটলেে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নর্বিাচন উপলক্ষে দলরে ইশতহোর ঘোষণা করার সময় এসব কথা বলনে তিনি।
তিনি বলেন, আমাদের ভুল ত্রুটিগুলোকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমরা কথা দিচ্ছি,অতীতরে ভুলভ্রান্তি থকেে শিক্ষা নিয়ে দেশবাসী আপনাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী ভবষ্যিৎ কর্মকাণ্ড পরচিালনা করবো।
জীবনে চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই জানিয়ে শেখ হাসনিা বলনে, মা-বাবা, ভাই-বোন সব হারিয়েছি। স্বজনহারা বদেনা নিয়ে পথে নেমেছি শুধু আমার বাবা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর যে স্বপ্নের বাংলাদেশ চেয়েছিল, তিনি সেটা সম্পন্ন করে যেতে পারনেনি,সেই কাজগুলো সম্পন্ন করাই আমার লক্ষ্য। আমি বাংলাদেশের জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করবো। এর মাধ্যমইে আমার বাবার স্বপ্নগুলো পূরণ করবো।
আওয়ামী লীগ সফলভাবে দেশ পরচিালনা করছে উল্লখে করে দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গত ১৫ বছরে বাংলাদেশের রূপান্তর ঘটেছে। আজকের বাংলাদেশ দারিদ্র্যক্লষ্টি ও অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গুর বাংলাদেশ নয়, আজকের বাংলাদেশ বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। সম্ভাবনার হাতছানি দেওয়া দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলা দুরন্ত বাংলাদেশ।
তিনি বলপন, শত বাধাবিপত্তি অতক্রিম করে আওয়ামী লীগ সফলভাবে দেশ পরচিালনা করে আসছে।ছোটখাটো অভিঘাত আমাদের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। করোনা মহামারিসহ নানা অভিঘাত মোকাবলিা করে সেই প্রমাণ আমরা রেখেছি।
শেখ হাসিনা বলনে, বাংলাদেশের ইতিহাসে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় ধারাবাহিকভাবে রাষ্ট্র পরচিালনার একটানা ১৫ বছর র্পূণ হতে চলেছে। পাঁচ বছর মেয়াদি সংসদীয় সরকারব্যবস্থা স্থিতিশীল থাকায় আমরা বাংলাদেশের অভূর্পূব উন্নতি সাধন করতে পেরেছি। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে।
এর আগে ‘র্স্মাট বাংলাদেশ: উন্নয়ন দৃশ্যমান বাড়বে এবার র্কমসংস্থান’ শিরোনামে আওয়ামী লীগরে নির্বাচনি ইশতেহার-২০২৪ ঘোষণা শুরু করনে শেখ হাসিনা।
এতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির আহ্বায়ক ড. আব্দুর রাজ্জাক বক্তব্য রাখেন। দলের সিনিয়র নেতারা, কূটনৈতিক কোররে প্রতিনিধি এবং সমাজের বিশিষ্টজনেরা উপস্থতি রয়েছেন।
ইশতেহারে আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তিন মেয়াদের র্অজন এবং আগামী মেয়াদে ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নয়নে তাদের র্কমপরিকল্পননা তুলে ধরা হয়ছে।২০০৯ থকেে ২০২৩ সালের শাসনামলকে ‘উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে বিশ্বরে বিস্ময় বাংলাদেশ’ বলা হয়ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments