বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
হোমজেলাহবিগঞ্জের তৈয়ব আলীর নিরুদ্দেশের ৬ বছর পর সন্ধান বিজয়নগরে

হবিগঞ্জের তৈয়ব আলীর নিরুদ্দেশের ৬ বছর পর সন্ধান বিজয়নগরে

হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার মোড়াকরি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে নিরুদ্দেশ হওয়ার প্রায় ছয় বছর পর তৈয়ব আলীর-(৪৪) সন্ধ্যান মিলেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায়। প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় ছয় বছর পর গত শনিবার অসুস্থবস্থায় বাড়ি ফিরেন তিনি।

তৈয়ব আলীর বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার মোড়াকরি গ্রামে। তবে তাঁর জন্মস্থান ওই জেলার সদর উপজেলার লোকরা ইউনিয়নের আশেরা গ্রামে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিজয়নগর উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের মেরাসানী গ্রামে শ্রমিকের কাজ করতেন। অসুস্থ হয়ে পড়ে থাকার পর স্বজনদের খোঁজ নিতে গিয়েই তাঁর বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়।

তৈয়ব আলীর ভাতিজা আজগর আলী জানান, পাঁচ থেকে সাত বছর আগে থেকে তার চাচা নিরুদ্দেশ ছিলেন। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে খবর পেয়ে শনিবার রাতে তৈয়ব আলীকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। তিনি এখনো পুরোপুরি সুস্থ নন।

আজগর আলী আরো জানান, পেশায় রিকশা চালক তাঁর চাচা তৈয়ব আলী চারটি বিয়ে করেন। দুই স্ত্রীর মারা যাওয়ার পর তৃতীয় বিয়ে করলে তালাক দেন তৃতীয় স্ত্রী। চতুর্থ বিয়ে করেও একই পরিণতি। এক পর্যায়ে ছেলে মেয়েদের সাথেও তার যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এরই মধ্যে তিনি ঋণগ্রস্থ হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে নিরুদ্দেশ হয়ে যান।

এ ব্যাপারে বিজয়নগর উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, তৈয়ব আলী নামে ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে মেরাসানী গ্রামে শ্রমিকের কাজ করতেন। তিনি রেলওয়ে স্টেশনের পরিত্যক্ত একটি কক্ষে বসবাস করতেন। কয়েকদিন আগে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। বিষয়টি বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে (ইউএনও) জানালে তার সাথে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্রের সূত্র ধরে স্বজনদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার লোকরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরহাদ আহমেদ আব্বাস জানান, বিজয়নগরের ইউএনও বিষয়টি হবিগঞ্জ সদরের ইউএনওকে অবহিত করেন। সদর ইউএনও’র মাধ্যমে জানতে পেরে ওই ব্যক্তির স্বজনদের খোঁজে বের করে খবর দেয়া হয়। শনিবার তৈয়ব আলীকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন স্বজনরা।

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments